স্ট্রেস কমাতে মদের ভূমিকা কী ? / স্ট্রেস কী? / What is stress in Bengali./ How to reduce strees in Bengali?

স্ট্রেস বা মনোদৈহিক চাপ
Strees




স্ট্রেস বা মনোদৈহিক চাপ এর পরিমাণ যত বাড়বে স্ট্রেস হরমোন ও তত বেশি পরিমাণে নিঃসৃত হয়। যত বেশি পরিমাণে নিঃসৃত হবে তত ই আপনার পেট থেকে উড়ু পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে খুব বেশি পরিমাণে ফেট জমা হতে থাকবে। আর আপনার শরীরের মধ্য ভাগের অতিরিক্ত পরিমাণ ফেট ই মূলত ইনসুলিন ও হৃদরোগে এর জন্য দায়ী। এবং অতিরিক্ত পরিমাণে স্ট্রেস মহিলাদের ক্ষেত্রে অনিয়মিত মাসিকের জন্য দায়ী।
বেশি পরিমাণে কর্টিসোল হরমোন নিঃসৃত হলে আপনার ঘুম হবে না আর যখন ঘুম ঠিক ভাবে হবে না তখন আপনার শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য হরমোন গুলো ঠিক মতো কাজ করতে পারবেনা।
যখন আমারা খুব বেশি স্ট্রেস এ থাকি তখন ধূমপান বা মদ্যপান করে স্ট্রেস কম করার চেষ্টা করি , কিন্তু আপনি কী জানেন ধূমপান ও মদ্যপান স্ট্রেস হরমোনের নিঃসরণ আরও বাড়িয়ে দেয়। আরও একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হল মিষ্টি জাতীয় খাবার যা স্ট্রেস হরমোন বা কর্টিসোল হরমোন নিঃসরণ বাড়িয়ে দেয়।
তাই মনোদৈহিক চাপ অবস্থায় মিষ্টি চা খাওয়া ও আপনার শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর।‌

স্ট্রেস কমানোর উপায়

১) শরীর চর্চা-
       শারীরিক ক্রিয়া বা শরীর চর্চা বা জিম করা , যখন আপনি জিমে পরিশ্রম করবেন তখন প্রাকৃতিক উপায়ে আপনার কর্টিসোল হরমোন কম হতে থাকবে। জিম না গেলে ও নূন্যতম কিছু শারীরিক পরিশ্রম করোন।

২) স্ট্রেস কমানোর খাবার-

অ) বাদাম (কাজুবাদাম ও আখরোট)-
        বাদাম স্ট্রেস কমানোর জন্য খুব উপযোগী ,একটা জিনিস মাথায় রাখতে হবে বাদামের মধ্যে প্রচুর পরিমাণ ক‍্যালোরি থেকে তাই আগে থেকেই যাদের অতিরিক্ত ওজন নিয়ে সমস্যা আছে তারা কম পরিমাণে বাদাম খাবেন। কাজুবাদামের মধ্যে থাকে জিঙ্ক এবং ম‍্যাগনেশিয়াম খনিজ , মূলত খাবারে জিঙ্ক এর অভাবের কারণে আমরা স্ট্রেস এর শিকার হয়ে থাকি, তাই স্ট্রেস বা মনোদৈহিক চাপ কমাতে কাজুবাদামের ভূমিকা অনেক বেশি। ঘুমানোর ১ ঘন্টা আগে কাজুবাদাম খাবেন, গরম হোক বা ঠান্ডা এতে কোনো সমস্যা‌ নেই।

আ) খ‍্যামোমাইল চা-
            এই চা এর উত্তেজক গন্ধ আপনার নার্ভ গুলো কে শান্ত করে স্ট্রেস কম করতে সাহায্য করে। এই চা আপনার শরীরের পক্ষে খুবই ভালো।
(বিঃ দ্রঃ - কেনার সময় অবশ্যই দেখবেন ক‍্যাফিন ফ্রি যেন হল , না হলে ক‍্যাফিন আবার আপনাকে ঘুমাতে দেবেনা) ঘুমানোর ২০-২৫ মিনিট আগে এই চা পান করা প্রয়োজন। গরম জলের মধ্যে ৫-১০ মিনিট সম্পূর্ণ ডুবিয়ে রাখার পর পান করুন।
আপনি যদি বাজারে এই চা না পেয়ে থাকেন তাহলে নিচে
একটা লিংক দিলাম ওই লিংকে ক্লিক করে আকর্ষণীয় ডিসকাউন্টে অর্ডার করতে পারেন।

ই) ওটমিল-
         ওট হল হাই ফাইবার জাতীয় খাবার এর ফলে দীর্ঘ সময় ধরে আপনার শরীরে শক্তির যোগান দেয় এবং সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ কাজ যা করে ত হল আপনার মস্তিষ্ককে সেরিটোনিন হরমোন নিঃসরণ করতে বাধ্য করে । এই হরমোন টি হল অ‍্যান্টি স্ট্রেস বা ফিল গুড হরমোন যা আপনার শরীরকে চাঙ্গা করতে সাহায্য করে এবং ভাল অনুভূতি জাগায়। দৈনিক ৩-৪ বার ওট খাওয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে স্ট্রেস কম করতে।
এই ৩ টি হল সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ অ‍্যান্টি স্ট্রেস ফুড তাছাড়া পালং শাক, আদা, ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ খাবার ও স্ট্রেস কম করার জন্য উপযোগী।

আসা করি এই লেখাটি আপনাদের ভাল লেগেছে, ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন।


আমাকে Facebook এ ফলো করুন

Facebook
https://Facebook.com/myfitnessyard



............................নমস্কার, ধন্যবাদ..............................

No comments

Featured Post

Gym. / All about gym in हिंदी & বাংলা. / Gym fitness.

                    Gym जाने का सही उम्र:- नमस्कार दोस्तो में हो  देबजित देब  ओर आपलोगो को स्वागत करता हो मेरा यार्ड  फिटनेस यार्ड...

Powered by Blogger.